Header Ads

জেনে নিন তরমুজ খেলে কি হতে পারে............???

তরমুজের উপকারিতা 

গ্রীস্মে ঘামের সাথে শরীর থেকে যে পানি বেরিয়ে যায়, তা পুরুণে তরমুজ উপাদেয়। তরমুজের রসের সাথে সামান্য মধু বা লেবুর রস মিশিয়ে বা বরফকুচি দিলে অত্যন্ত সুস্বাদু পানীয় হয়। গ্রীস্মে তক স্বাভাবিক রাখতে তরমুজ অদ্বিতীয়। তরমুজ পোড়া ত্বকেকে সজীব করে। আদ্রতা জোগায়। প্রচন্ড জ্বরের সময় ঠান্ডা তরমুজ বা তরমুজের শরবত খাওয়ালে তাপ কমে যায়। তরমুজ খেলে উচ্চ রক্তচাপ কমে আসে। হৃৎপিণ্ড সুস্থ থেকে। তরমুজ কষ্ঠকাঠিন্য দূর করে, কিডনি ভালো রাখে এবং হজমে সাহায্য করে। তরমুজ খেলে রক্তপিত্ত ভালো হয়। এতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন সি ও খনিজ লবণ। মুখের ত্বকে কোনো দাগ হলে তরমুজের টুকরো ঘষলে উঠে যায়। ব্রন হলে তার উপরে তরমুজের রস লাগালে ভালো হয়। যাদের মুখ ভর্তি ব্রন তারা সারা মুখে তরমুজের রস লাগিয়ে ১৫মিনিট পর গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে উপকার হয়। ১৫দিন লাগাতে হবে।
তরমুজ ক্লান্তি দূর করে, পুষ্টি আনে, হৃদরোগ ভালো করে, টাইফয়েড জ্বরে উপকারী, প্রস্রাবস্বল্পতা ও জালাপোড়া সারায়।

আসুন স্বল্পসময়ের পুষ্টিসমৃদ্ধ বহু উপকারী তরমুজ খাই।

No comments

Powered by Blogger.